মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভূমি বিষয়ক তথ্য

১। ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ঃ

 খাতক/প্রজা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে  হাজির হয়ে ভুমি উন্নয়ন প্রদান করতে পারেন ।  ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের জন্য প্রজার বাড়িতে যান ।

২। নামজারী/জমা খারিজ অনুমোদনঃ

প্রার্থককে নির্ধারিত ফরমে ৫(পাঁচ) টাকার কোট ফি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে আবেদন করতে  হয়।

৩। সরকারী খাস পুকুরঃপুকুর ইজারার জন্য  বিজ্ঞপ্তি / নোটিশ জারী করা হয়। সর্বোচ্চ দরদাতা বরাবর ইজারা অথবা খাস কালেকশনের মাধ্যমে একসনা বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

৪। খাস জমি বন্দোবস্তঃস্ব -স্ব ইউনিয়ন ভূমি অফিসে বিজ্ঞপ্তি জারী করা হয়।  খাস জমির বন্দোবস্তের জন্য নির্ধারিত ফরমে সুবিধাভোগীগণ/ভূমিহীন ব্যক্তি সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে আবেদন করতে পরেন ।

৫। আবাসন/অশ্রয়ন প্রকল্প ও আদর্শগ্রামঃপ্রকল্পের নিমার্ণ কাজ সমাপ্তির পর ভূমিহীন সুবিধাভোগীদের  আবেদন পত্রগুলি যাচাই বাছাই অন্তে এবং  উপজেলা খাস জমি বন্দোবস্ত কমিটির সিদ্ধান্ত  মতে ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়।

৬। সরকারী গাছ নিলাম ডাকঃবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বহুল প্রচার করা অন্তে প্রকাশ্য নিলাম ডাকের ব্যবস্থা করা হয়।

৭। অর্পিত সম্পত্তি একসনা ও  পুকুর ইজারাঃ

একসনা ইজারার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি)এর বরাবর আবেদন করতে হয়।

 পুকুর ইজারার জন্য  বিজ্ঞপ্তি / নোটিশ জারী আন্তে  সবের্বাচ দরদাতা বরাবর ইজারা বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

৮।  সার্টিফিকেট মোকদ্দমাঃবকেয়া ভূমি উন্নয়ন কর  আদায়ের জন্য সার্টিফিকেট মোকদ্দমায় খাতক বরাবর নোটিশ জারী করা হয় ।  খাতক ধার্য তারিখে  সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে শুনানীতে হাজির / আবেদন দাখিল করতে  পারেন।

৯। বিবিধ মোকদ্দমাঃযে কোন আদেশের বিরুদ্ধে প্রজা ক্ষুদ্ধ হলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট রিভিউ আবেদন করতে পারেন এবং দো-তরফা শুনানী অন্তে  মোকদ্দমা নিষ্পত্তি হয়।


Share with :

Facebook Twitter