মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

শিক্ষা প্রতিবেদন

 

মাধ্যমিক শিক্ষা উন্নয়নে সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করিয়াছেন। যেমনঃ-

(১)বিনামূল্যে বই বিতরণঃ২০১০ খ্রিঃ হইতে সরকার মাধ্যমিক স্তরে (স্কুল ওমাদ্রাসায়) বিনামূল্যে ছাত্র/ছাত্রীদের পাঠ্যপুস্তক সরবরাহ করিয়াছে।

(২)কর্মকর্তা নিয়োগঃশিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহপরিদর্শন, প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান, বিদ্যালয় ভিত্তিক মূল্যায়ন(SBA) সঠিকভাবে বাস্তবায়ন ইত্যাদি বিষয়ে আঞ্চলিক অফিস, জেলা শিক্ষা অফিসে গবেষণাকর্মকর্তা ও সহকারী পরিদর্শক এবং উপজেলায় উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজারনিয়োগ প্রদান করা হইয়াছে।

(৩) প্রশিক্ষণঃশিক্ষকদের পেশাগত মানউন্নয়নের জন্য TQI-SEP প্রকল্পের অর্থায়নে সারাদেশব্যাপী শিক্ষকদের CPD-1, CPD-2 ও ক্লাষ্টার প্রশিক্ষণ দেওয়া হইতেছে।

(৪) মা সমাবেশঃবিদ্যালয়েছাত্র/ছাত্রীদের অনুপস্থিতি হ্রাস, ঝরেপড়া প্রতিরোধ এবং পরীক্ষায় ভালফলাফল অর্জনের লক্ষ্যে উপজেলা পর্যায়ে স্কুল ভিত্তিক মা সমাবেশ শুরু করাহইয়াছে।

(৫) সৃজনশীল পরীক্ষা পদ্ধতিঃ২০১০ খ্রিঃ এসএসসি পরীক্ষাসৃজনশীল প্রশ্ন পদ্ধতিতে শুরু হইয়াছে। ২০১১ খ্রিঃ দাখিল পর্যায়ে সৃজনশীলপ্রশ্ন পদ্ধতিতে পরীক্ষা শুরু হইবে। এই বিষয়ে স্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষকদেরপ্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ সমাপ্ত করা হইয়াছে।

 

(৬)  সেকেন্ডারী এডুকেশন সেক্টর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (SESDP) :
সৃজনশীলপ্রশ্নপদ্ধতি প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন, বিদ্যালয় ভিত্তিক মূল্যায়ন, কৃতিভিত্তিকব্যবস্থাপনা পদ্ধতি বাস্তবায়ন, শিক্ষক প্রশিক্ষণ প্রভৃতি এই প্রকল্পেরপ্রধান কার্যক্রম। এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোগত উন্নয়নেও এইপ্রকল্প কাজ করছে। জেলা ও উপজেলায় উক্ত প্রকল্পের কর্মকর্তাগণ  বিদ্যালয়পরিদর্শনের মাধ্যমে শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নে কাজ করছেন।পরিদর্শনকারীকর্মকর্তাগণ প্রতিষ্ঠানের সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে থাকেন, এছাড়া ডাটা এন্ট্রিঅপারেটর তথ্য সংরক্ষন, আদান প্রদানসহ বিভিন্ন ধরনের কাজ করে থাকেন।